আন্দোলন তো দূরে, লজ্জায় মুখই দেখাতাম না : পাপন

স্পোর্টস ডেস্ক : প্রায় দেড় মাস আগে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচ হারে বাংলাদেশ। এরপর কয়েকদিন আগেই ক্রিকেটারদের স্বার্থ রক্ষায় ধর্মঘটে যায় বাংলাদেশের জাতীয় এবং ঘরোয়া পর্যায়ের ক্রিকেটাররা। টেস্ট ক্রিকেটের নতুন সদস্য আফগানিস্তানের বিপক্ষে হেরে ক্রিকেটাররা আন্দোলনে নামায় কিছুটা অবাক হয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে স্পিনিং উইকেটে খেলে ২২৪ রানের বড় ব্যবধানে হারে বাংলাদেশ। যদিও বিসিবি সভাপতির চাওয়া ছিল, স্পিনে শক্তিশালী আফগানদের বিপক্ষে স্পোর্টিং উইকেটে খেলা হোক।বাংলাদেশ দলের টেস্ট এবং টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের চাওয়াতেই চট্টগ্রামে স্পিনিং উইকেট বানায় পিচ কিউরেটররা। এ কারণে অবশ্য আগেও ক্ষোভ প্রকাশ করেন বিসিবি প্রধান। সম্প্রতি দেশের শীর্ষস্থানীয় একটি দৈনিককে দেয়া সাক্ষাৎকারে আবারো টেনে আনলেন পুরনো কথা।

পাপন বলেন, ‘আফগানিস্তানের বিপক্ষে স্পোর্টিং উইকেটে খেলা হওয়ার সিদ্ধান্ত ছিল। কিন্তু পরে শুনি স্পিন উইকেটে খেলবে। আমি তখন বিদেশে। তাহলে বলুন এই ব্যর্থতার দায় কার?নিজেদের মাঠে আমরা অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডকে হারিয়েছি। আর কিনা হারলাম আফগানিস্তানের কাছে? আমি হলে আন্দোলন দূরের কথা, লজ্জায় মুখই দেখাতাম না।’

ধর্মঘটের ঘোষণা দিয়ে অবশ্য লাভবান হয়েছেন সাকিবরা। বিসিবি ক্রিকেটারদের ১১টি দাবির মধ্যে নয়টি মেনে নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে। আলোচনার টেবিলে আছে নতুনভাবে করা আরও দুটি দাবি। -ক্রিকফ্রেঞ্জি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares