কুচক্রী মহল ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে: ছাত্রলীগ সভাপতি

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেছেন, বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলাবাহিনী সর্বোচ্চ দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেয়ার পরও কুচক্রী মহল ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধকরণ, সাম্প্রদায়িক অস্থিতিশীলতা তৈরির চেষ্টা করছে। দেশবিরোধী চুক্তির ধুয়া তুলে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বাংলাদেশকে হেয় প্রতিপন্ন করার প্রচেষ্টা তারা করছেন। আজ বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।গত রবিবার রাত ২টার দিকে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শের-ই-বাংলা হলের সিঁড়ি ঘর থেকে তড়িৎ কৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই হলের শিক্ষার্থীদের বরাত দিয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয় সন্ধ্যা ৭টার দিকে আবরারকে কয়েকজন ডেকে নিয়ে যায়। পরে, রাত ২টার দিকে হলের দ্বিতীয় তলার সিঁড়িতে তার মরদেহ পাওয়া যায়বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদকে হত্যার পরই গ্রেফতার হন বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ ১০ জন। বহিস্কার করা হয় ১১ জনকে। আবরারের বাবার দায়ের করা মামলায় ১৯ জনকে আসামি করা হলেও প্রাথমিক তদন্তে ১১ জনের বিরুদ্ধে সুষ্পষ্ট প্রমাণ পাওয়া গেছে। বহিস্কৃতদের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করছে ছাত্রলীগের তদন্ত কমিটি।

কেনাঠাসা করেন। গত শনিবার পুলিশের ‘অনুমতি উপেক্ষা’ করে রাজধানীতে সমাবেশ করেছে বিএনপি। সামনেও সভা- সমাবেশের জন্য পূর্ব অনুমতির অপেক্ষা করবে না বিএনপি। এমনটিই জানিয়েছেন দলের সিনিয়র নেতারা।পুলিশের অনুমতি উপেক্ষা করে বিএনপির সমাবেশ সম্পর্কে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, পুলিশকে তারা (বিএনপি) জানিয়েছে কিন্তু এখানে অনুমতি না দিয়ে অন্যায় কাজ

করেছে। বিএনপি সামাবেশ করে খুবই ভালো কাজ করেছে। সরকার খুবই ভুল কাজ করতেছে, অনৈতিক কাজ করছে। রাজনৈতিক দলকে মিটিং করতে দিবে না; বিএনপি অনুমতির জন্য আগেই জানিয়েছে তারা কোন উত্তর না দিয়ে চুপ করে বসে থাকবে, এটা খুবই খারাপ কাজ।তিনি বলেন, বিএনপি নেতাকর্মীদের উচিত হবে সভা সমাবেশের জন্য সরকারকে জানাবে, অনুমতি না দিলেও তারা (বিএনপি) সভা সমাবেশ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares