ঘুমে আচ্ছন্ন দুই পরিবারের ১০ সদস্য

দুই পরিবারের মানুষদের রাতের খাবারের সঙ্গে নেশাজাতীয় দ্রব্য খাইয়ে বা স্প্রে করে সবাইকে অচেতন করে ঘরের সর্বস্ব লুটে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় দুই পরিবারের ১০ জন সদস্য এখনও অচেতন অবস্থায় রয়েছেন। বুধবার (১৬ অক্টোবর) রাতে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার ৪ নং সুবিদপুর পশ্চিম ইউনিয়নের ঘড়িহানা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, ঘড়িহানা গ্রামের বাগার বাড়ির তৈয়ব আলী ও পার্শ্ববর্তী কাজী বাড়ির মকবুল মিয়ার পরিবারের সবাই বুধবার রাতে খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। পরে সকালে আশপাশের লোকজন তাদের দেখতে না পেয়ে সন্দেহ হলে ঘরে গিয়ে দেখেন সবাই অচেতন অবস্থায় পড়ে রয়েছে। এ সময় ঘরের আলমিরাসহ সবকিছু এলোমেলো ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, দুর্বৃত্তরা দুই পরিবারের ঘর থেকে নগদ অর্থ, স্বর্ণালংকারসহ সবকিছু লুট করে নিয়ে গেছে।

স্থানীয়রা আরও জানান, উভয় পরিবারের সদস্য প্রবাসে থাকে। অচেতন অবস্থায় থাকা দুই পরিবারের সদস্যরা হলেন- রুমা বেগম (২০), আলমগীর (২৭), মিনু (৪৩), আকলিমা (২৫), শাজাহান কাজী (৫০), রানী বেগম (৪০), সাহানাজ (২৫), সুমাইয়া (৭), মানিক মিজি (৩৫)। বর্তমানে তারা স্থানীয় এক চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন মিয়া জানান, দুর্বৃত্তরা উভয় ঘরে সিঁদ কেটে ও ভেনটিলেটর ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ছাড়া ওই পরিবারের সদস্যদের খাবারে নেশা জাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে দেয় বা নেশা জাতীয় স্প্রে ব্যবহার করে সবাইকে অচেতন করে এবং নগদ অর্থ, স্বর্ণালংকারসহ মালামাল নিয়ে যায়। ফরিদগঞ্জ থানার ওসি আব্দুর রকিব গণমাধ্যমকে জানান, ঘটনা শুনে আমি ঘটনাস্থলে গিয়েছি। অনুসন্ধান চলছে। আশা করছি এই ঘটনাটির রহস্য দ্রুত বের হয়ে আসবে এবং অপরাধীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares