জেনে নিন বিয়ের আগে কী কী মেডিকেল টেস্ট করাবেন

বিয়ে মানে সারাজীবন একজনের সাথে কাটাবার প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হওয়া। সারাজীবন একে অপরের সাথে কাটাবার আগে সব বিষয় সম্পর্কে পরিষ্কার হয়ে নেয়াই ভালো। কারণ বিয়ের পর কোনো সমস্যা সামনে এলে তা নিয়ে হতে পারে পারিবারিক অশান্তি, এমনকি তা গড়াতে পারে ডিভোর্স

পর্যন্ত। সুতরাং দেখে নিন কিছু মেডিকেল টেস্ট যা অবশ্যই বিয়ের আগে করাবেন। থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত কারোর সঙ্গে স্বাভাবিক কারোর বিয়ে হলে সন্তানের থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত হওয়ার ২৫ শতাংশ সম্ভাবনা থাকে। হবু স্বামী-স্ত্রীয়ের মধ্যে একজন যদি থ্যালাসেমিয়ার বাহক হয়, তবে সমস্যা হয় না, কিন্তু দুজনেই এই রোগের বাহক হলে সেক্ষেত্রেও সন্তানের থ্যালাসেমিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার ২৫ শতাংশ সম্ভাবনা থাকে। আর দুজনেই যদি থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত হয়, তবে চিকিৎসকরা সন্তান না নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

বিয়ের আগে স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞের কাছে গিয়ে পাত্রীর পরীক্ষা করে দেখে নেওয়া উচিত ইউটেরাস ও ওভারিতে কোনো সমস্যা আছে কিনা। সেইসঙ্গে পাত্রের বীর্যপাতজনিত কোনো সমস্যা আছে কিনা তা আগেই টেস্ট করে জেনে নেওয়া উচিত। বিয়ের আগে একাধিক সঙ্গীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক থাকলে এইচআইভি, গনোরিয়া, সিফিলিসের মতো যৌনরোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই বিয়ের আগে এই পরীক্ষা করে নেওয়া উচিত। এই রোগগুলি সেক্সুয়ালি ট্রান্সমিটেড ডিজিজ (এসটিডি) নামে পরিচিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares