দাওয়াত খেতে গিয়ে থানায় অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা

হঠাৎ করেই মাঝরাতে থানায় হাজির হতে হয় ওপার বাংলার অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা সরকারকে। না, এটি কোন শুটিংয়ের কাহিনী নয়। তার বন্ধু ফটোগ্রাফার তথাগত ঘোষকে থানা থেকে ফিরিয়ে আনতে সেখানে গিয়েছিলেন এই অভিনেত্রী।বন্ধু তথাগতকে সঙ্গে নিয়ে ভাইফোঁটা উপলক্ষে অন্য এক বন্ধুর বাড়ি গিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা। অনুষ্ঠান ছাড়াও সেখানে একসঙ্গে বাজি পোড়ানো হবে বলে ঠিক করা ছিল। ওই পরিবারের আরও অনেকেই শামিল হয়েছিলেন বাজি পোড়ানোয়।

শব্দবিধি না মেনে বাজি পোড়ানোয় পাড়ার মানুষ স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। এরপর সেসময় ওই বাড়িতে পুলিশ হাজির হন। আচমকা পুলিশ আসায় প্রাথমিক ভাবে সকলেই ঘাবড়ে যান।তবে এই বাজি পোড়ানোর সময়ে প্রিয়াঙ্কা সেস্থানে ছিলেন না বলেই শোনা গিয়েছে।পুলিশের বরাতে তথাগতের ভাষ্য, ‘যে বাড়িতে আমাদের নিমন্ত্রণ ছিল, সেই পরিবারের কয়েকটি বাচ্চা শেল ফাটাচ্ছিল। তখন রাত প্রায় সাড়ে এগারোটা হবে। অভিযোগ শুনে সেই সময়ে পুলিশ আসে। কিন্তু সেখানে পরিবারের তরফে কোনও পুরুষ সদস্য না থাকায় আমি ও আমার এক বন্ধু থানায় হাজিরা দিতে যাই।’

প্রিয়াঙ্কা থানায় পৌঁছালে দু’পক্ষের সমঝোতায় কিছুক্ষণের মধ্যেই তথাগত ও তাঁর বন্ধুকে ছেড়ে দেওয়া হয়। এ ব্যাপারে প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘কী অদ্ভুত কান্ড! নিমন্ত্রণ খেতে গিয়ে থানায় যেতে হল। বাচ্চাগুলোর কথা ভেবেই থানায় গিয়েছিলাম আমরা। পুলিশ আমাদের সঙ্গে পূর্ণ সহযোগিতা করেছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares