দেহব্যবসা নিয়ে এবার বোমা ফাটালেন পাকিস্তানি নীলছবির তারকা নাদিয়া আলি

বিনোদন ডেস্ক : ‘জেনা করা পাপ, তবে নীল সিনেমায় নয়। কারন, নীল সিনেমায় অভিনয় করাকে আমি পেশার অংশ হিসেবে দেখি’, এমন মন্তব্য করলেন পাকিস্তানি নীলছবির তারকা নাদিয়া আলি। ডেইলি পাকিস্তানকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ মন্তব্য করেন তিনি। এ সময় কাজ অব্যাহত রাখবেন বলেও জানান নাদিয়া।

নিজেকে বিশ্বাসী মুসলিম দাবি করে তিনি বলেন, নীল ছবিতে সিনেমায় অভিনয় করাটা তার প্রতিদিনের জীবনের অংশ। আনন্দ পাওয়া নয়, বরং পেশাদার অভিনেত্রী হিসেবে কাজটি করেন তিনি।সম্প্রতি হিজাব পরে নীল ছবিতে অভিনয় করা নিয়ে পাকিস্তানের ট্রলের শিকার হন ২৫ বছর বয়সী নাদিয়া। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘প্রথাগত মুসলিম হিসেবে হিজাব পরার সিদ্ধান্ত নেই আমি। এর ফলে আমার ভিডিও’র দর্শক অনেক বেড়েছে।’

নাদিয়া শুরুতে ড্যান্সার হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন। পরে হয়ে ওঠেন নীল ছবির তারকা। মাঝে এসকর্ট হিসেবে কাজ করেন পাকিস্তানে নিষিদ্ধ হওয়া এই অভিনেত্রী।নাদিয়া স্বীকার করেন, নীল ছবির ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করতে গিয়ে একজন মুসলিম হিসেবে নিজের বিশ্বাসের সঙ্গে মাঝে মাঝে দ্বন্দ্ব তৈরি হয় তার। ভবিষ্যতে মডেল হিসেবেও কাজ করতে চান বলে জানান তিনি।

নাদিয়ার কাজ পছন্দ করেন না তার বাবা-মা। নাদিয়া বলেন, ‘অন্য আর দশটা বাবা-মায়ের মতো তারাও মেয়েকে নীল ছবির তারকা হিসেবে দেখতে চান না। তবে তাদের সঙ্গে আমার চমৎকার সম্পর্ক রয়েছে। তারা আমাকে বোঝে এবং এসব ব্যাপারে অত্যন্ত খোলামেলা আলাপ করি আমরা।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares