প্রধান বিচারপতি হেসে বললেন, আমারও কাঁপাকাঁপি শুরু হয়েছে

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দীর্ঘদিন যাবত কারাগারে বন্দি আছেন, তাঁর বিরুদ্ধে ১৭টি মামলা চলমান আছে। এর মধ্যে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের মামলায় বেগম জিয়া সাজা পেয়েছেন। এখন মামলাটি আপিল বিভাগে বিচারাধীন আছে। বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) এই মামলায় বেগম জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। শুনানির শুরুতেই বেগম জিয়ার আইনজীবী ও প্রধান বিচারপতির মধ্যে কথোপকথনে আদালতে কিছুটা হাস্যরসের সৃষ্টি হয়।

শুনানি শুরু হওয়ার আগে খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘মাই লর্ড, কোর্টে এসে পুলিশের তল্লাশি, নিরাপত্তা দেখে আমার কাঁপাকাঁপি শুরু হয়ে গেছে।’ জবাবে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনও হাসতে হাসতে বলেন, ‘আমারও তো কাঁপাকাঁপি শুরু হয়ে গেছে। আপনারা সুপ্রিম কোর্টের সামনের গেটে এসে রাস্তা বন্ধ করে ভাংচুর করেছেন’। পরে জবাবে আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘এটা রাজনৈতিক বিষয়। মাঠে-ময়দানের বিষয় এখানে আনা ঠিক হবে না। মাঠে-ময়দানের বিষয় মাঠেই থাকুক।’ এরপর জামিনের ওপর শুনানি শুরু করেন বিচারকরা।

এর আগে খালেদা জিয়ার জামিনের শুনানিকে কেন্দ্র করে সুপ্রিম কোর্টে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়। সুপ্রিম কোর্টের প্রতিটি প্রবেশপথ ও আদালত চত্বরের ভেতরে বিভিন্ন স্থানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া আর্চওয়ে এবং মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে তল্লাশি করে আইনজীবী, বিচারপ্রার্থী, সাংবাদিকসহ সংশ্লিষ্টদের আদালত চত্বরে প্রবেশ করানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares