বিদেশি নারী-পুরুষ একসঙ্গে থাকার অনুমতি দিল সৌদি আরব!

পর্যটক বাড়াতে এবার অবিবাহিত বিদেশি নারী-পুরুষদের একসঙ্গে এক রুমে থাকার অনুমতি দিয়েছে সৌদি আরব। পাশাপাশি, সৌদি নারীদের জন্যেও শিথিল করা হয়েছে হোটেলে ওঠার নিয়ম। এখন থেকে শুধু নিজের পরিচয়পত্র দেখিয়েই হোটেলের কক্ষ ভাড়া নিতে পারবেন তারা, পরিবারের কোনও পুরুষ সদস্যের অনুমতি নিতে হবে না। খবর রয়টার্সের।প্রতিবেদনে বলা হয়, কট্টর ইসলামিক দেশ হিসেবে পরিচিত সৌদি আরবে বিবাহবহির্ভূত শারীরিক সম্পর্ক কঠোরভাবে নিষিদ্ধ। তবে, সম্প্রতি অর্থনীতিতে তেলনির্ভরতা কমিয়ে পর্যটন বাড়ানোর লক্ষ্যে পশ্চিমা দেশের অনুকরণে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে তারা।

এর অংশ হিসেবেই অবিবাহিত বিদেশিদের একসঙ্গে থাকার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে।গত শুক্রবার আরবি সংবাদমাধ্যম ওকাজে সৌদির পর্যটন ও জাতীয় ঐতিহ্য কমিশনের এক ঘোষণায় বলা হয়, হোটেল উঠতে সব সৌদি নাগরিককে পারিবারিক পরিচয়পত্র বা সম্পর্কের প্রমাণ দেখাতে হবে। তবে, বিদেশিদের জন্য এই নিয়ম প্রযোজ্য নয়। সৌদিসহ সব নারীই পরিচয়পত্র দেখিয়ে হোটেলে একা একা কক্ষ ভাড়া নিতে পারবেন। এর আগে, গত সপ্তাহে ৪৯টি দেশের নাগরিকদের জন্য দরজা খুলে দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি। নতুন আদেশে বলা হয়েছে, পর্যটক নারীদের বোরকা পরার প্রয়োজন নেই, শুধু পোশাক-পরিচ্ছদে সংযত থাকলেই চলবে।সৌদি আরব ও উপসাগরীয় দেশবিষয়ক এই বিশেষজ্ঞ বলেন, সৌদির নিরাপত্তা দিতে তার সক্ষমতার ওপর আত্মবিশ্বাস কমে গেছে। আর এটা তার পররাষ্ট্র, প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা নীতিরই ফল।প্রতিদ্বন্দ্বীদের তুচ্ছ করে বছর দুয়েক আগে সিংহাসনের উত্তরসূরি হওয়ার পর থেকে তার বিরুদ্ধে ফুঁসতে থাকা অসন্তোষে ইন্ধন জুগিয়েছে এ হামলা।দুর্নীতির অভিযোগে সৌদি আরবের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে তিনি ধরপাকড় ও গ্রেফতার অভিযান চালিয়েছেন।প্রতিবেশী ইয়েমেনে ইরানসংশ্লিষ্ট হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে ব্যয়বহুল যুদ্ধের কারণে দেশের বাইরে সুনাম খুইয়েছেন এমবিএস। হুতিদের বিরুদ্ধে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলায় হাজার হাজার বেসামরিক লোক নিহত হয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares