মেননের বিদেশ যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা, ব্যাংক হিসাব তলব

ক্যাসিনো বাণিজ্যে জড়িত থাকার অভিযোগে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এবং তার স্ত্রীর ব্যাংক হিসাব তলব করেছে বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল ইনটেলিজেন্স ইউনিট। একই সাথে রাশেদ খান মেননের আয়কর হিসাব এবং তার সম্পত্তির বিবরণী রাজস্ব বিভাগ থেকে চাওয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে যে, রাশেদ খান মেননের বিরুদ্ধে ক্যাসিনোর টাকা নেওয়ার সুনির্দিষ্ট অভিযোগ উঠেছে। ক্যাসিনো

বাণিজ্যের অন্যতম হোতা ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন যে তিনি রাশেদ খান মেননকে প্রতি মাসে টাকা দিতেন। এ কারণেই রাশেদ খান মেননের সম্পদের হিসাব তলব করা হচ্ছে। একই সাথে তার বিদেশ যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের জন্য সুপারিশ করেছে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা। কারণ তারা মনে করছে, যেকোনো সময় রাশেদ খান মেননকে জিজ্ঞাসাবাদের প্রয়োজন হতে পারে। তিনি যেন দেশ থেকে পালিয়ে না যান সেজন্য ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে তদন্তকারী কর্মকার্তারা অনুরোধ জানিয়েছেন।

ক্যাসিনো বাণিজ্যে জড়িত থাকার অভিযোগে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এবং তার স্ত্রীর ব্যাংক হিসাব তলব করেছে বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল ইনটেলিজেন্স ইউনিট। একই সাথে রাশেদ খান মেননের আয়কর হিসাব এবং তার সম্পত্তির বিবরণী রাজস্ব বিভাগ থেকে চাওয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে যে, রাশেদ খান মেননের বিরুদ্ধে ক্যাসিনোর টাকা নেওয়ার সুনির্দিষ্ট অভিযোগ উঠেছে। ক্যাসিনো বাণিজ্যের অন্যতম হোতা ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন যে তিনি রাশেদ খান মেননকে প্রতি মাসে টাকা দিতেন। এ কারণেই রাশেদ খান মেননের সম্পদের হিসাব তলব করা হচ্ছে। একই সাথে তার বিদেশ যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের জন্য সুপারিশ করেছে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা। কারণ তারা মনে করছে, যেকোনো সময় রাশেদ খান মেননকে জিজ্ঞাসাবাদের প্রয়োজন হতে পারে। তিনি যেন দেশ থেকে পালিয়ে না যান সেজন্য ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে তদন্তকারী কর্মকার্তারা অনুরোধ জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares