শতাব্দীর ভয়ঙ্করতম ঝড়ে কাঁপছে জাপান

সকল আশঙ্কা সত্যি করে ভয়ঙ্কর রূপ নিয়ে জাপানে আছড়ে পড়েছে শতাব্দীর অন্যতম ভয়াবহ টাইফুন হাগিবিস। স্থানীয় গণমাধ্যম বলছে, টাইফুন হাগিবিসের আঘাতে এখন পর্যন্ত অন্তত দুই জনের প্রাণহানি ঘটেছে। তবে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ঝড়ের আঘাতে অন্তত ৭০ জন আহত হয়েছেন।শনিবার দেশটির ইচিহারা শহরে সবচেয়ে বেশি শক্তি নিয়ে আঁচড়ে পড়ে হাগিবিস। টাইফুনের আঘাতে ইতোমধ্যে সেখানকার ১২টি বাড়ি সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়ে গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৮৯টি বাড়ি। নিকটবর্তী তোমিওকা শহরে কয়েকজনের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। সেখানে ভূমিধসে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে চারটি বাড়ি। গোতেম্বা শহরে এক ব্যক্তি ঝড়ের ধাক্কায় ড্রেনে ভেসে গেছেন।দেশটির পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে ১.৬ মিলিয়ন মানুষকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নেয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রবল বেগের কারণে ঝড়ের সঙ্গে হবে ব্যাপক বৃষ্টিপাত,

ভূমিধস এবং বন্যা দেখা দিতে পারে।এক সতর্কবার্তায় জানানো হয়েছে, এবার এত বৃষ্টি হবে যা আগে কখনও জাপান দেখেনি। আশঙ্কা করা হচ্ছে, টাইফুনের কারণে সমুদ্রে জলের মাত্রাও বাড়তে পারে। এ ছাড়াও ৪৫ ফুট ঢেউ ওঠার আশঙ্কার কথা জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। টাইফুনের কারণে বর্তমানে জাপানের থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে। অসংখ্য বিমানের যাত্রা বাতিল করা হয়েছে।বলা হচ্ছে, এবারের টাইফুনের গতিবেগ হতে পারে প্রায় ১৯৫ কি.মি. প্রতি ঘণ্টা। এই ঝড় নিয়ে কিছুটা চিন্তিত নাসাও। মার্কিন এই গবেষণা সংস্থা বলছে, এটিই শতাব্দীর ভয়ঙ্করতম ঘূর্ণিঝড়।এদিকে, এই মৌসুমে জাপানে হাগিবিস ১৯তম টাইফুন। গত বছরও ভয়ঙ্করতম সামুদ্রিক ঝড়ের কবলে পড়েছিল জাপান। সেবার অসংখ্য প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছিল। তবে এবার আগে থেকেই ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে জাপানের বিভিন্ন বিভাগ। দেশটির প্রধানমন্ত্রী সিনজো আবেও ‘হাগিবিস’ সচেষ্ট রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares