সৌদির সাথে আলোচনা, শর্ত জুড়ে দিলো ইরান

ইয়েমেন যুদ্ধে নিরপরাধ মানুষের রক্তপাত থামালেই কেবল সৌদি আরবের সাথে আলোচনায় বসতে পারে ইরান। এমন শর্ত জুড়ে দিয়ে বলা হয়েছে, আঞ্চলিক ইস্যু নিয়ে রিয়াদ আলোচনা করতে চাইলে তেহরান তখন সে আহ্বানে সাড়া দেবে। মঙ্গলবার কথাগুলো বলেছেন, ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ।সম্প্রতি সৌদি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমান ইরানের সঙ্গে তার দেশের সম্ভাব্য আলোচনায় মধ্যস্থতা করতে ইরাক ও পাকিস্তানের প্রতি যে আহ্বান জানান, সে সম্পর্কে প্রতিক্রিয়া জানাতে জারিফ এই মন্তব্য করেন।জারিফ বলেন, সৌদি আরব ইরানের সঙ্গে সংলাপের জন্য যখন আগ্রহ প্রকাশ করেছে তখন তাকে ‘মানব হত্যা’

বন্ধ করে আঞ্চলিক বিষয়াদি নিয়ে আলোচনা করার মানসিকতা পোষণ করতে হবে। শুধুমাত্র সেক্ষেত্রেই তেহরানকে পাশে পাবে রিয়াদ।গতমাসে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সৌদি সফরের সময় রিয়াদ ও তেহরানের মধ্যে মধ্যস্থতা করতে ইমরানকে অনুরোধ করেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। যুবরাজ ইমরান খানকে এও বলেন, ‘আমি যুদ্ধ এড়াতে চাই।’সম্প্রতি নিউ ইয়র্কে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনের সাইডলাইনে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সঙ্গে এ ব্যাপারে কথাও বলেন ইমরান। ইরানি নেতাদের সঙ্গে কথা বলার জন্যে ইরাককেও অনুরোধ করা হয়েছে রিয়াদের পক্ষ থেকে।সর্বশেষ ১৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের দুই তেল স্থাপনায় হামলায় বেশ উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে রিয়াদ। হামলার ঘটনার পর সৌদি আরবের তেল উৎপাদন প্রায় অর্ধেকে নেমে আসে। এরপরই ইরানের সঙ্গে আলোচনার ব্যাপারে মধ্যস্থতা করতে পাকিস্তান ও ইরাকের শরণাপন্ন হন সৌদি যুবরাজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares