৪০ জনের জীবন বাঁচানো সেই কনস্টেবল পারভেজ মিয়া এখন পঙ্গু!

কনস্টেবল পারভেজ মিয়ার কথা কারও মনে পড়ে? ৭ জুলাই, ২০১৭ সালে কুমিল্লার দাউদকান্দির গৌরীপুরে বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ডোবায় পড়ে গেলে ঘটনাস্থলে উপস্থিত লোকজন দাঁড়িয়ে যখন ভিডিও করায় ব্যস্ত ছিলেন, ঠিক এই সময় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ময়লা-নোংরা পানিতে লাফিয়ে পড়েন দাউদকান্দি হাইওয়ে থানার কনস্টেবল পারভেজ মিয়া। পানিতে আটকে থাকা বাস থেকে ২-২৬ যাত্রীর জীবন বাঁচান।

পারভেজ মিয়ার ওই সাহসিকতার জন্য স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে পুলিশের সর্বোচ্চ পুরস্কার বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল (বিপিএম) দিয়ে পুরস্কৃত করেছিলেন। সেই বীরপুরুষ পারভেজই এখন পঙ্গু অবস্থায় দিনানিপাত করছেন, করছেন সরকারী সাহায্যের আবেদন। ২৭ মে, ২০১৯ ডিউটিতে থাকাকালীন অবস্থায় কাভার্ড ভ্যানের ধা’ক্কায় গু’রুতর আহ’ত হন পারভেজ।

দুর্ঘটনায় ডান পায়ের গোড়ালি ও হাত মা’রাত্মক ক্ষ’তিগ্রস্ত হয়। পরে প’ঙ্গু হাসপাতালে কনস্টেবল পারভেজের জন্য একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। বোর্ডের চিকিৎসকরা পারভেজের জীবন বাঁচাতে অ’স্ত্রোপচার করে তার পা কে’টে ফেলেন।

বিবেকের কাছে আজ প্রশ্ন থেকে যায়, এ সমাজের মানুষের, এ দেশের কি দায়বদ্ধতা নেই একজন বীর, একজন সাহসী পুলিশ সদস্য পারভেজ মিয়ার প্রতি?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares