‘নির্বাচন হবে, ভোটাররা হাত ধুয়ে ভোট দেবেন’- ইসি সচিব

আসন্ন ঢাকা-১০ আসনসহ তিনটি সংসদীয় আসনে উপনির্বাচন যথাসময়ে হবে জানিয়ে নির্বাচন কমিশন সচিব মো. আলমগীর বলেছেন, করোনার কারণে কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কম হবে, আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যাও কম হবে। তবে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন ও অন্যান্য উপনির্বাচন হবে কিনা সে বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত দেয়া হবে।

তিনি বলেন, উপ-নির্বাচন আগামী ২১ মার্চই অনুষ্ঠিত হবে। ভোটাররা হাত ধুয়ে ভোট দেবেন। ভোট দিয়ে আবার হাত ধোবেন।

বৃহস্পতিবার অনির্ধারিত কমিশন বৈঠক শেষে তিনি একথা বলেন। মো. আলমগীর বলেন, করোনার মধ্যে নির্বাচনের সুবিধা-অসুবিধা আলোচনা করে সুবিধাই বেশি দেখছে কমিশন। তাই ২১ মার্চ নির্বাচন বন্ধ না করার সিদ্ধান্ত দিয়েছে।

তিনি বলেন, প্রতি ভোটকেন্দ্রে হ্যান্ড স্যানিটাইজার থাকবে। ভোট দেওয়ার আগে-পরে তারা এটা ব্যবহার করবেন। কেউ যদি নিজেকে করোনায় আক্রান্ত বলে মনে করেন, আমাদের পরামর্শ থাকবে, আপনারা ভোট দিতে আসবেন না।
এখনো সরকার সবকিছু লকডাউন করেনি। আজকের একনেক সভায়ও প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, কাজ বন্ধ করা যাবে না।
তিনি বলেন, একজন ভোটার এলেও আইন অনুযায়ী নির্বাচন করতে হবে। প্রার্থীরাও আমাদের নির্বাচন বন্ধ না করার অনুরোধ করেছেন।

মো. আলমগীর বলেন, করোনা এখনো মহামারি আকারে ছড়ায়নি। এজন্য কমিশন নির্বাচনটা সম্পন্ন করা যুক্তিযুক্ত মনে করছে। তবে করোনার কারণে ভোটার উপস্থিতি কম হবে ধরে নিয়েই আমরা নির্বাচন করছি।

তিনি বলেন, ভোটার উপস্থিতি যেহেতু কম হবে, সেহেতু নির্বাচনের কারণে জনস্বাস্থ্যের ঝুঁকিও কম হবে। এছাড়া আপনারা হাত ধুয়ে ভোট দেবেন। ভোট দিয়ে আবার হাত ধোবেন, তাহলেই হবে।

প্রসঙ্গত, আগামী ২১ মার্চ ঢাকা-১০, গাইবান্ধা-৩, বাগেরগাট-৪ আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এসব উপনির্বাচন বাদে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন ছাড়াও যশোর-৬ এবং বগুড়া-১ আসনে নির্বাচন আগামী ২৯ মার্চ হবে কিনা এ বিষয়ে পরে কমিশন সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। ২১ মার্চ কমিশন সভাটি অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *